কুলিয়ারচরে ধর্ষণের স্বাক্ষী দেওয়ায় এক যুবককে হামলা

কিশোরগঞ্জ

মোঃ আলী সোহেল, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক পাগলী ধর্ষণের ঘটনায় স্বাক্ষী দেওয়ায় আল-আমিন (৩২) নামে এক যুবকের উপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলার শিকার আল-আমিন লক্ষ্মীপুর মধ্যপাড়া গ্রামের মোঃ মুক্তার উদ্দিনের ছেলে।

রোববার (২৫ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার গোবরিয়া আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর মধ্যপাড়া গ্রামে এ হামলার ঘটনাটি ঘটে।

আহত আল-আমিন অভিযোগ করে বলেন, গত ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ২টার দিকে লক্ষ্মীপুর মধ্যপাড়া গ্রামের স্বাধীন মিয়ার মুদির দোকানের সামনে একটি পরিত্যাক্ত চৌকির মধ্যে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক পাগলী ধর্ষণের শিকার হয়। এঘটনায় আল-আমিন (৩২) সহ মুদির দোকানদার স্বাধীন মিয়া একই গ্রামের মৃত দুলা মিয়ার পুত্র মোঃ ইসলাম উদ্দিন (৪৫) কে অজ্ঞাত পরিচয়ের ওই পাগলীকে ধর্ষণকারী হিসেবে তার নামে স্থানীয় লোকজন ও সংবাদিকদের নিকট স্বাক্ষী দেওয়ায় ইসলাম উদ্দিনসহ তার আত্মীয় স্বজন আল-আমিনের উপর ক্ষিপ্ত হয়। এর প্রেক্ষিতে স্বাক্ষী দেওয়াকে কেন্দ্র করে রোববার (২৫ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে একই গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের ভাগিনা মোঃ রুস্তম আলীর পুত্র মোঃ হাকিম উল্লাহ (২৬) তার হাতে থাকা টর্চলাইট দিয়ে আল-আমিনের মাথায় আঘাত করে। এতে আল-আমিন রক্তাক্ত যখম হয়। এসময় আল-আমিনের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন।

এব্যাপারে অভিযুক্ত মোঃ হাকিম উল্লাহ’র সাথে যোগাযোগ করা হলে ধর্ষণের ঘটনায় স্বাক্ষী দেওয়ায় আল-আমিনকে মারধোর করার কথা অস্বীকার করে তিনি বলেন, ঘটনার সময় স্বাধীন মিয়ার মুদির দোকানের সামনে আমার পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে আল-আমিনের সাথে আমার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে আল-আমিন আমাকে এলোপাতারি কিল-ঘুষি দিয়ে গলায় চাপদিয়ে আমাকে শ্বাসরুদ্ধ করে খুন করার চেষ্টা করে। এসময় আমার ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী এসে আমাকে উদ্ধার করে।

এই বিষয়ে কুলিয়ারচর থানার ওসি তদন্ত মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, এই বিষয়ে থানায় কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ আসলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.