কুলিয়ারচরে ভিবাটেক চালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার
মোঃ আলী সোহেল, কিশোরগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে শরিফ (২৮) নামের এক যুবকের গলাকাটা রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে কুলিয়ারচর থানা পুলিশ। নিহত শরিফ(২৮) কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার চন্ডিবের গ্রামের মুক্তার মিয়ার ছেলে। জানা যায়, নিহত শরিফ ভিবাটেক রিক্সা চালাতেন।
বৃহস্পতিবার (১৩ অক্টোবর) দিবাগত রাত সাড়ে ৯ টার দিকে উপজেলার রড়ছয়সূতী চকবাজার – মাটিকাটা রাস্তার পাশে অজ্ঞাত এক যুবকের গলাকাটা রক্তাক্ত মৃতদেহ পড়ে থাকার খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে বিড় জমায়। পরে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে, সাথে সাথেই কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা, এ এসপি ভৈরব সার্কেল রেজুয়ান দীপু ঘটনাস্থলে আসেন এবং মৃৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ থানায় নিয়ে যায়। পরে কুলিয়ারচর থানা পুলিশ তদন্ত করে নিহতের পরিচয় উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। হত্যার শিকার ওই যুবকের নাম শরিফ (২৮) পিতার নাম মুক্তার মিয়া গ্রাম ভৈরব চন্ডিবের।
স্থানীয়রা জানান, নিহতের গলা ও মাথা সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে কি কারনে কে বা কারা এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে তা কেউ বলতে পারছেনা।
এ বিষয়ে কুলিয়ারচর থানার ওসি গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সাংবাদিকদের বলেন, ধারণা করা হচ্ছে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে ঘটনাস্থলেই জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের পরিচয় পাওয়া গেছে, তাঁর নাম শরিফ পিতা মুক্তার মিয়া সাং চন্ডিবের, ভৈরব কিশোরগঞ্জ। তিনি আরও জানান, তদন্তের মাধ্যমে ঘটনার কারন জানতে পারবো। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে । এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়ান রয়েছে।