মোঃ আরিফুল ইসলাম,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে ও গাছের গুড়ি ফেলে পার্বত্য খাগড়াছড়ির পাঁচ উপজেলায় ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) ডাকে আধাবেলা সড়ক অবরোধ চলছে।
খাগড়াছড়ির গুইমারায় প্রতিপক্ষের গুলিতে ইউপিডিএফের গুইমারা উপজেলা সংগঠক অংথোই মারমা ওরফে আগুন-কে হত্যার প্রতিবাদে এ অবরোধের ডাক দেয় পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফ।
অবরোধ চলাকালে রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) খাগড়াছড়ির পাঁচ উপজেলায় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে বিচ্ছিন্নভাবে পিকেটিং করেছে ইউপিডিএফ সমর্থকরা।
অবরোধের ফলে খাগড়াছড়ির সাথে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দূরপাল্লার সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এছাড়াও খাগড়াছড়ির গুইমারা, মাটিরাঙ্গা, রামগড়, মানিকছড়ি ও লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার আভ্যন্তরীণ সড়কেও যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এদিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নৈশকোচগুলো সকালের দিকে পুলিশি পাহারায় জেলা সদরে পৌঁছে দেয়া হয়েছে।
আধাবেলা অবরোধ চলাকালে যেকোনো ধরনের সহিংসতা এড়াতে পাঁচ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি সেনাবাহিনী ও বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে।
গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ রশীদ বলেন, গুইমারা থানা এলাকার সাতটি পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বিভিন্নস্থানে অবরোধকারীরা চোরাগোপ্তা হামলা করছে জানিয়ে তিনি বলেন, পুলিশী প্রহরায় যান চলাচল স্বাভাকিক রাখা হয়েছে। তবে অবরোধকে কেন্দ্র করে বড় ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি।
প্রসঙ্গত, শুক্রবার সকালের দিকে খাগড়াছড়ির গুইমারার দেওয়ানপাড়ায় প্রতিপক্ষের গুলিতে খুন হয় প্রসীত খীসা সমর্থিত ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট-ইউপিডিএফ’র গুইমারা উপজেলা অংথোয়াই মারমা প্রকাশ আগুন।