ধামইরহাটে এক সেনা সদস্যের পরিবার নিরাপত্তাহীনতায়

মাসুদ সরকার, ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর ধামইরহাটের এক সেনা পরিবারের সদস্যরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। বিচারের আশায় বিভিন্ন দপ্তরে ধর্না দিয়েও কোন বিচার না পেয়ে সুবিচারের আশায় ভুক্তভোগী পরিবার সংবাদ সন্মেলন করেন।
উপজেলার চকরহমত গ্রামের মৃত আঃ গণি মন্ডলের ছেলে ভুক্তভোগী নজরুল ইসলাম রবিবার ১০ আগষ্ট সকাল ১০ টায় ধামইরহাট প্রেস ক্লাবে উপস্থিত হয়ে লিখিত বক্তব্যে জানান, আমি একই গ্রামের দাতা ফরিদা খাতুন পিতা মৃত আশরাফ আলী দেওয়ান এর নিকট থেকে চকরহমত মৌজায় খতিয়ান নং আরএস ৯২ খতিয়ানের ৪০ নং দাগে ধানী জমি ১৯ শতাংশের মধ্যে ১২ শতাংশ জমি বসত বাড়ি নির্মাণের জন্য বাংলাদেশ সেনা বাহিনীতে চাকুরীরত আমার ছেলে মোঃ আবু সাঈদ এর নামে কবলা দলিল মুলে ক্রয় পূর্বক শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোগ দখল করে আসিতেছি। যার দলিল নং ৪৩৩৫ তাং ২২-১২-২০২০। এমতবস্থায় প্রতিবেশী লোকজন আমার ক্রয়কৃত সম্পত্তির উপর দিয়ে জোর পূর্বক রাস্তা নির্মাণের চেষ্টা করলে আমি বাঁধা দেই। বাঁধা দেওয়ায় প্রতিপক্ষেরা আমার স্ত্রী, মেয়ে, সহদর ভাই সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের মারপিট করেন। এবং প্রতিপক্ষরা আমার পরিবারের ১১ জন সদস্যের নামে ধামইরহাট থানায় গত ৩০ জুলাই একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ ওই দিন ওয়াহেদ (৫৫), ফরিদুল ইসলাম (৩০), দুলাল হোসেন (৫৫), ও পলাশ (২৫) কে আটক করে কোর্ট হাজতে প্রেরন করেন। বর্তমানে আমার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এবং বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র বসবাস করছি। বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি সুবিচারের আশায়।